বিজ্ঞাপন

আয়োজকেরা জানান, গত ২৪ এপ্রিল প্রথম আলোর ফেসবুক ও ইউটিউবে পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী টমটম ব্যবসায়ীদের করোনাকালীন দুর্দশা নিয়ে একটি ভিডিও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। সেই প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অসহায় এই মানুষদের সাহায্যার্থে এগিয়ে এসেছে সংগঠনটি। সহায়তা হিসেবে ২০০ কেজি ঘোড়ার খাবারসহ টমটমের চালক ও ব্যবসায়ীদের হাতে ঈদসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। পাশাপাশি করোনাকালে ঢাকা শহরের ঐতিহ্যবাহী বাহন টমটমের ঘোড়াগুলো দেখাশোনা করার পরিকল্পনাও করেছেন তাঁরা।

সংগঠনের সদস্যরা জানান, ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের (ইউল্যাব) শিক্ষার্থীদের সংগঠন টুগেদার ফর বাংলাদেশ তরুণদের সংগঠন। এটি একটি মানবিক ও উন্নয়ন সহায়তা সংগঠন। করোনায় সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য অনুদানের অংশ হিসেবে তহবিল সংগ্রহ, জরুরি ত্রাণ, ইফতার ও ঈদ উপহার বিতরণের সঙ্গে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করছে সংগঠনটি।

উদ্যোগের প্রধান সমন্বয়ক নাজমুস সাকিব বলেন, ‘টমটম ঢাকার ঐতিহ্যের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। করোনার সময় ঘোড়াগুলোকে দেখাশোনা করা তাঁদের মালিকদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। প্রাণীও আমাদের সমাজের মানুষের পাশাপাশি বেঁচে থাকার অধিকার রাখে। তাদের ওপরও আমাদের নজর প্রয়োজন। প্রথম আলোর প্রতিবেদন দেখে ঢাকাবাসী ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় আমরা ঢাকা-সদরঘাট-কামরাঙ্গীর চরে ঘোড়া ও তাদের মালিকদের জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছি।’

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন