টাকা পরিবহনে ডিএমপির এসকর্ট সেবা

বিজ্ঞাপন
default-image

ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন ও পরিবহনে ‘মানি এসকর্ট’ সেবা চালু করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। সহায়তাপ্রত্যাশী ব্যক্তি বা প্রতষ্ঠানকে সংশ্লিষ্ট থানা বা পুলশি কন্ট্রোলরুমে যোগাযোগ করতে হবে। তবে এ ক্ষেত্রে যানবাহনের ব্যবস্থা করতে হবে সেবাপ্রত্যাশী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে।

আজ সোমবার ডিএমপির গণমাধ্যম ও জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। পুলিশ কন্ট্রোলরুমের নম্বরগুলো হলো ৯৫৫৯৯৩৩, ৯৫৫১১৮৮, ৯৫১৪৪০০, ০১৭১৩-৩৯৮৩১১ এবং জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর: ৯৯৯।

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর সায়েদাবাদ এলাকায় গতকাল রোববার সাইফুল ইসলাম সবুজ নামের এক ব্যক্তির ৫৫ লাখ ৬৯ হাজার টাকা ছিনতাই হয়। সাইফুল ডাচ্‌–বাংলা ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের সঙ্গে যুক্ত। এর এক দিন পর ডিএমপি এই ঘোষণা দিল।

বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ বলেছে, করোনাভাইরাসরে মতো বৈশ্বিক সমস্যার প্রভাব বাংলাদেশেও পড়েছে। করোনার আতঙ্কে ঢাকার রাস্তাঘাট অন্যান্য সাধারণ সময়ের চেয়ে অনেকটাই ফাঁকা। একটু অসর্তকতার জন্য কষ্টে উপার্জিত অর্থ দুষ্কৃতিকারীরা ছিনিয়ে নিতে পারে।

বড় অঙ্কের টাকা বহনে কিছু পরামর্শও দিয়েছে পুলিশ। টাকা বহনে একাধিক বিশ্বস্ত ব্যক্তিকে সঙ্গে রাখা, টাকা বহনসংক্রান্ত কোনো তথ্য আগেই অন্যকে না জানানো, পায়ে হেঁটে বা রিকশায় টাকা বহন না করে মোটরসাইকেল বা গাড়িতে বহন করা, নগদ টাকা বহনের আগে দোকান বা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কেউ দুষ্কৃতিকারীদের জানিয়ে দিয়েছে কি না, সে বিষয়ে সতর্ক থাকা, প্রতিদিন টাকা বহনের প্রয়োজন হলে মাঝেমধ্যে ভিন্ন পথ ব্যবহার করা যাতে দুষ্কৃতিকারীরা আগেই ওত পেতে থাকার সুবিধা না নিতে পারে, দুষ্কৃতিকারীরা যাতে প্রলুব্ধ হওয়ার সুযোগ না পায় সে জন্য ব্যাগ এমনভাবে ব্যবহার করা যাতে বাইরে থেকে বোঝা না যায়, বড় নোট ব্যবহার করা, সব টাকা একসঙ্গে না রেখে ভিন্ন জায়গায় যেম পকেট, ব্যাগ, সঙ্গের ব্যক্তির কাছে ভাগ করে রাখা ইত্যাদি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন