default-image

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আজ রোববার সকালে মহাখালী শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে করোনার টিকা নিয়েছেন। পরে এখানে আরও কয়েকজন মন্ত্রী ও উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তি টিকা নিয়েছেন। টিকাদান কার্যক্রম চলছে।

আজ সকাল নয়টা থেকে সারা দেশে করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে টিকাদান কার্যক্রম নিয়ে এক অনুষ্ঠানে অনলাইনে সারা দেশের সিভিল সার্জন ও জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে যুক্ত হন। তিনি টিকাদানের কার্যক্রম সম্পর্কে অবগত হন এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বছরব্যাপী টিকার কার্যক্রম চলবে। আমাদের টিকা আসতে ছয় মাস লাগবে। এরপর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকা আসবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, টিকার অ্যাপ আছে। আর অ্যাপে সমস্যা হলে ইউনিয়ন তথ্যকেন্দ্রে টিকার নিবন্ধন করা যাবে।

এরপর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক অধ্যাপক সামন্তলাল সেনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তিরা শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল কেন্দ্র থেকে করোনার টিকা নেন। এখানে টিকাদান চলছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন