default-image

রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় এক শিশু কে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বুধবার সকালে শিশুটির লাশ উদ্ধার করেছে খিলক্ষেত থানা-পুলিশ।
শিশুটির নাম রনি। বয়স ১১ বছর। বাবার নাম মো. রায়হান। তিনি পেশায় রাজমিস্ত্রি। গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ। শিশুটি তার পরিবারের সঙ্গে খিলক্ষেত এলাকায় থাকত। সে চা ও মাস্ক বিক্রি করত।

খিলক্ষেত থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জানান, খিলক্ষেত মধ্যপাড়া এলাকার ভাড়া বাসা থেকে শিশুটির লাশ আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি দুপুরের দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

রনির স্বজনদের বরাত দিয়ে এসআই মিজানুর রহমান জানান, গত ১৬ এপ্রিল বিকেলে রনিদের ভাড়া বাসার পাশের রুমে থাকা ফয়েজ মিয়া তাঁর মেয়েকে মারধর করছিলেন। তাঁকে বাধা দিতে গিয়েছিল রনি। এ সময় তিনি রনিকে জোরে আঘাত করেন। রনির বুকে মারাত্মক আঘাত লাগে। রনি প্রথমে বিষয়টি তার মা-বাবাকে জানায়নি। পরে ব্যথা হলে বিষয়টি জানায়।

বিজ্ঞাপন

প্রথমে স্থানীয়ভাবে রনির চিকিৎসা করানো হয়। গতকাল মঙ্গলবার তার অবস্থার অবনতি হয়। তাকে খিলক্ষেতের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। পরে তার লাশ বাসায় নিয়ে আসেন স্বজনেরা।

শিশুটি চাচা অহিদুল ইসলাম ও মামা স্বপন মিয়া জানান, রনি বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান ছিল। তাকে হত্যার অভিযোগ করেন তাঁরা।

রনির ওই দুই স্বজনের ভাষ্য, ঘটনাটি পরিবার জানার পর থেকে ফয়েজ পলাতক রয়েছেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন