বিজ্ঞাপন

সায়েদাবাদ থেকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বাস দিগন্ত পরিবহন ছেড়ে যায় বেলা দেড়টায়। এ বাসেও কোনো ধরনের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে দেখা যায়নি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ওই বাসের সুপারভাইজার আপেল মাহমুদ প্রথম আলোকে বলেন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বাসের ভেতরে আছে, কিন্তু ব্যবহার করা হয়নি। তবে ব্যবহার করা হবে।

পাঁচটি পরিবহনের কাউন্টারের ব্যবস্থাপক ও চালকের সহকারীরা জানিয়েছেন, যাত্রী কম থাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাসগুলো চলাচল করছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ ছিল কম। আগে যাঁরা টিকিট কাটেননি, তাঁরা কাউন্টারে এসে টিকিট কাটছেন।

অনেক যাত্রী অভিযোগ করেছেন, সরকারি নির্দেশনার বাইরে গিয়ে বাসভাড়া নেওয়া হচ্ছে। ঢাকা-সিলেটের আগে যেখানে ভাড়া ছিল ৩০০ টাকা, এখন সেখানে নেওয়া হচ্ছে ৬০০ টাকা। দিগন্ত পরিবহনের যাত্রী রেশমা খাতুন প্রথম আলোকে বলেন, তিনি যাচ্ছেন সিলেটে, কিন্তু ভাড়া বেশি নিচ্ছে। ৬০০ টাকা করে ভাড়া দিয়ে ঢাকা থেকে সিলেট যেতে হচ্ছে তাঁকে। এটা অন্যায়।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালের দিগন্ত পরিবহনের কাউন্টার ব্যবস্থাপক মো. সুমন প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের বাসগুলো অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে। কোনো বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে না।’

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন