ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমসহ নির্বাচনী মালামাল সরবরাহ করা হচ্ছে
ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমসহ নির্বাচনী মালামাল সরবরাহ করা হচ্ছেছবি: প্রথম আলো

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের জন্য ভোটকেন্দ্রে ইভিএমসহ নির্বাচনী সরঞ্জাম সরবরাহ শুরু হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়। আগামীকাল বৃহস্পতিবার এই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এই উপনির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়া হবে। কাল সিরাজগঞ্জ-১ আসনেও উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেখানেও ভোট নেওয়া হবে ইভিএমে।

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, কাল সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হবে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট নেওয়া হবে। এই উপনির্বাচন উপলক্ষে আজকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ইভিএমসহ নির্বাচনী মালামাল সরবরাহ করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

ভোট সুষ্ঠু করতে নির্বাচনী এলাকায় পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন থাকবে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা। জি এম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, পুলিশ, আনসার, র‍্যাব, বিজিবি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পর্যাপ্তসংখ্যক সদস্য মাঠে থাকবেন। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অত্যন্ত ভালো।

ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে গিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘সার্বিক নিরাপত্তাব্যবস্থা আমরা জোরদার করেছি। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে আমরা যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।’

আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ এই আসনের উপনির্বাচনে ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোহাম্মদ হাবিব হাসান, বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, জাতীয় পার্টির নাসির উদ্দিন সরকার, গণফ্রন্টের প্রার্থী গাজী মো. শহীদুল্লাহ, বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী ওমর ফারুক ও প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক পার্টির প্রার্থী মহিবুউল্লাহ বাহার।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা ১৮ আসনে মোট ভোটার ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৯০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৬ জন। নারী ভোটার ২ লাখ ৮১ হাজার ৫৪ জন। ভোটকেন্দ্র রয়েছে ২১৭টি। ভোটকক্ষের সংখ্যা ১ হাজার ৩৫৩টি।

গত ৯ জুলাই আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের ঢাকা-১৮ আসনটি শূন্য হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0