বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কাননের বন্ধু প্রতীতি প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রিলিজের কথা বললেও তাঁরা আরও কয়েক দিন কাননকে হাসপাতালে রাখতে চাইছেন। পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার পর কানন বাড়িতে যেতে চাইছেন।

গত মঙ্গলবার ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দোকানমালিক ও কর্মচারীদের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৪০ জনের বেশি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এর মধ্যে অনেকে জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে ফিরে গেছেন। কেউ কেউ আবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন।

নিউমার্কেট এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা হলেন ডি-লিংক নামের কুরিয়ার সার্ভিসের ডেলিভারিম্যান নাহিদ ও নিউ সুপারমার্কেটে রেডিমেড কাপড়ের দোকানের বিক্রয়কর্মী মুরসালিন। তাঁরা দুজনই কামরাঙ্গীরচরের বাসিন্দা ছিলেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন