বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রাজধানীর রাজারবাগ, সায়েদাবাদ, মণিপুরীপাড়া ও শেওড়াপাড়া এলাকায় টানা অভিযান চালায় র‍্যাব। র‍্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন মেহেদী হাসান (২৭), সাদিক হাসান (২৬), তালিবুর রহমান (২৪), মো. ফয়সাল (২৩) ও ফারুক হাসান। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের কাছ থেকে অবৈধ ওয়াকিটকি ছাড়া ১১৬টি মুঠোফোন ও ৫ হাজার ২৪৪টি বিভিন্ন প্রকার সরঞ্জামও জব্দ করা হয়, যার বাজারমূল্য প্রায় ৫০ লাখ টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব-১০-এর অধিনায়ক ও পুলিশের অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক মাহফুজুর রহমান বলেন, কালো রঙের ওয়াকিটকি সেট বিটিআরসির অনুমোদন ছাড়া আমদানি করা নিষিদ্ধ। এসব সেট শুধু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু একটি অপরাধী চক্র বিটিআরসির অনুমোদন ছাড়া অবৈধভাবে অন্য পণ্যের আড়ালে বিভিন্ন রকমের সরঞ্জাম আমদানি করছে। পরবর্তীকালে এসব সরঞ্জাম দিয়ে তারা অবৈধ ওয়াকিটকি সেট তৈরি করছে।

মাহ্ফুজুর রহমান বলেন, দেশের প্রচলিত আইন অমান্য করে এই চক্র অবৈধভাবে কালো রঙের ওয়াকিটকি সেট তৈরি ও বিক্রি করেছে, যা সার্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ।

এক প্রশ্নের জবাবে মাহ্ফুজুর রহমান বলেন, এ ধরনের অবৈধ ওয়াকিটকি সেট ব্যবহার করে অপরাধী চক্র ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, প্রতারণাসহ নানান অপরাধকর্ম করছে। বিভিন্ন সময় ভুয়া র‍্যাব বা পুলিশ আটকের পর এ ধরনের ওয়াকিটকি সেট জব্দ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির উপপরিচালক এস এম গোলাম সারওয়ার। তিনি বলেন, বিটিআরসির অনুমোদন ছাড়া অবৈধভাবে তরঙ্গ ব্যবহার করা সম্ভব। তবে যারা অবৈধভাবে তরঙ্গ ব্যবহার করে, তাদের বিরুদ্ধে বিটিআরসি নিয়মিত অভিযান চালিয়ে থাকে।

গোলাম সারওয়ার বলেন, নিয়ম অনুযায়ী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ছাড়া অন্য কারও কালো রঙের ওয়াকিটকি সেট ব্যবহারের সুযোগ নেই। তারপরও বিভিন্ন জায়গায় এ ধরনের সেট ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব বন্ধে বিটিআরসি কাজ করছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন