বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল বক্সের পুলিশ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ইসমাইল বিকেল পাঁচটার দিকে মারা যায়। ফারজানার অবস্থাও তেমন ভালো না। ইসমাইলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

এই শিশুদের বাসা রাজধানীর ফকিরাপুলে। হাসপাতালে শিশুদের মা পরীবানু আজ প্রথম আলোকে বলেন, ঘরে তেলাপোকার উপদ্রব বেশি হওয়ায় তাঁর বড় ছেলে ফাহিমকে দিয়ে তেলাপোকা মারার ওষুধ আনিয়েছিলেন। আজ দুপুর ১২টার দিকে তেলাপোকা মারার ওষুধের প্যাকেটকে আচারের প্যাকেট মনে করে ছোট দুই ছেলে–মেয়ে বাইরে নিয়ে খেয়ে ফেলে। এরপরই তাদের বমি শুরু হয়। দুজনকে তৎক্ষণাৎ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এরপর তাদের পাকস্থলী পরিষ্কার করা হয়।

পরীবানু বাসাবাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করেন। আর তাঁর স্বামী ফকিরাপুলে তাঁরা যে বস্তিতে থাকেন, সেটির তত্ত্বাবধায়ক।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন