default-image

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট আগামী বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে। নতুন অর্থবছরে প্রায় ৬ হাজার ১০০ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করতে যাচ্ছে সংস্থাটি।

ডিএসসিসির প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মুনান হাওলাদার আজ সোমবার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আশা করছি, চলতি সপ্তাহেই বাজেট ঘোষণা করা হবে।’

ডিএসসিসি সূত্রে জানা গেছে, নতুন অর্থবছরের জন্য বরাদ্দ রাখা ৬ হাজার ১০০ কোটি টাকার বেশির ভাগই নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে। এই খাতে এবার আয় ধরা হয়েছে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা।

গত অর্থবছরে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে সংস্থাটির আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২ হাজার ৪৪৮ কোটি টাকা। সংশোধিত বাজেটে এই টাকার পরিমাণ গিয়ে দাঁড়ায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা।

১৭ খাতে নতুন করে ব্যয়ের পরিকল্পনা
ডিএসসিসি সূত্রে জানা যায়, নতুন অর্থবছরে অন্তত ১৭টি উন্নয়নমূলক খাতে নতুন করে টাকা খরচ করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো মশাবাহিত রোগপ্রতিরোধে সমন্বিত মশকনিধন কার্যক্রম। এই খাতে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হচ্ছে।

এ ছাড়া দক্ষিণ সিটি এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনে ৩০০ কোটি টাকা, কামরাঙ্গীরচরে নতুন শহর আধুনিকায়ন করার কাজে ২০০ কোটি, খাল-জলাশয়, পার্ক-উদ্যান উন্নয়ন করে সুন্দর ও নান্দনিক ঢাকা বিনির্মাণে ৩০০ কোটি, বুড়িগঙ্গার তীরে জমি অধিগ্রহণ করে রাস্তা ও নান্দনিক পার্ক নির্মাণে ২৫০ কোটি, বিনোদন সেবা প্রদানের লক্ষ্যে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেন্দ্রীয় শিশুপার্কের আধুনিকায়নের কাজে ৩০০ কোটি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য অত্যাধুনিক যান ও যন্ত্রপাতি কিনতে ২৯০ কোটি টাকা ব্যয় করার পরিকল্পনা রাখা হয়েছে। এসব খাতে গত অর্থবছরে কোনো বরাদ্দ ছিল না।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ইতিমধ্যে বোর্ড সভার মাধ্যমে নতুন অর্থবছরের বাজেট অনুমোদন করেছে। ২০২০-২১ অর্থবছরে সংস্থাটির বাজেট ৪ হাজার ৫০৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

দক্ষিণ সিটির মতো উত্তর সিটিরও ঘোষিত বাজেটের বেশির ভাগ টাকা আসবে সরকারি ও বৈদেশিক সহায়তামূলক প্রকল্প থেকে। এই খাত থেকে এবার ৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা আয়ের পরিকল্পনা করেছে সংস্থাটি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0