default-image

সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে এস নবীর দুই নাতিকে আরও এক লাখ টাকা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন উচ্চ আদালত। তাদের চাচা কাজী রেহান নবীকে ২৮ অক্টোবরের মধ্যে ওই অর্থ দিতে বলা হয়েছে। বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মো. জাকির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ রোববার ওই নির্দেশ দেন।

বেসরকারি একটি টিভি চ্যানেল ৩ অক্টোবর রাতে শিশু অধিকার নিয়ে এক আলোচনায় উঠে আসে যে, কে এস নবীর দুই নাতিকে ধানমন্ডির বাসায় ঢুকতে দিচ্ছেন না তাদের চাচা। বিষয়টি নজরে এলে সেদিন মধ্যরাতে হাইকোর্টের একই বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত রুল দিয়ে দুই শিশু ও তাদের মাকে ওই বাসায় (ধানমন্ডি বাড়ি নম্বর-৯০, রোড নম্বর-৭ /এ) পৌঁছে দিতে পুলিশকে নির্দেশ দেন। নির্দেশ বাস্তবায়নের অগ্রগতি ধানমন্ডি থানার ওসিকে জানাতে বলা হয়। পরদিন বিষয়টি উঠলে আদালত দুই শিশুকে ১১ অক্টোবর (আজ রোববার) পর্যন্ত পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দিতে ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে ওই শিশুসহ উভয় পক্ষকে ১১ অক্টোবর আদালতে যেতে বলা হয়। এ অনুসারে দুই শিশু ও তাদের মা এবং চাচা আজ আদালতে উপস্থিত হন। আদালত তাঁদের বক্তব্য শোনেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ওয়ায়েস আল হারুনী।

বিজ্ঞাপন

পরে ওয়ায়েস আল হারুনী প্রথম আলোকে বলেন, ৩ অক্টোবরের আদেশ অনুসারে রেহান নবী দুই শিশুকে ভরণপোষণের জন্য দুই লাখ টাকা দিয়েছেন। আদালত ২৮ অক্টোবরের মধ্যে আরও এক লাখ টাকা শিশুদের দিতে বলেছেন। আদালতে সপ্তাহে দুদিন শিশুদের কোনো সমস্যা আছে কি না, তা ধানমন্ডি থানাকে খোঁজ নিতে বলেছেন। শিশুদের চাচার সময়ের আরজির পরিপ্রেক্ষিতে আদালত ২৮ অক্টোবর পরবর্তী দিন রেখেছেন।

সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল কে এস নবীর দুই ছেলে। বড় ছেলে কাজী রেহান নবী সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী। ছোট ছেলে সিরাতুন নবী গত ১০ আগস্ট মারা যান। তার দুই ছেলে কাজী নাহিয়ান নবী ও কাজী আদিয়ান নবী। পুলিশের তথ্যমতে, সিরাজুন নবীর সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর বিচ্ছেদ ঘটেছিল।

মন্তব্য পড়ুন 0