বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ১ আগস্ট রাজধানীর গুলশানের ভাড়া বাসা থেকে মাদকসহ ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসাকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এরপর তাঁর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে পুলিশ। পরে তাঁর বিরুদ্ধে খিলক্ষেত ও ভাটারা থানায় আরও দুটি মামলা হয়। সম্প্রতি আলাদা তিনটি মামলায় পিয়াসার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ।

গুলশান থানায় করা মাদক মামলার অভিযোগপত্রে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) জানিয়েছে, পিয়াসা মডেলিং পেশার আড়ালে নিয়মিত ক্লাবে যেতেন। ক্লাব থেকে টাকার বিনিময়ে নিয়মিত মদ সংগ্রহ করতেন। পরে এসব মাদকদ্রব্য তিনি ক্লাব ও বাসায় বিভিন্ন পার্টিতে আসা লোকজনের কাছে বিক্রি করতেন। অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে, পিয়াসার বাসা থেকে জব্দ করা বিদেশি মদ, বিয়ার, সিসা, ইয়াবা সম্পর্কে সঠিক কোনো জবাব দিতে পারেননি তিনি।

খিলক্ষেত থানায় করা মাদক মামলায় পিয়াসা ও মাসুদুল ইসলামকে অভিযোগপত্রভুক্ত করা হয়েছে। অন্যদিকে ভাটারা থানার মাদক মামলায় পিয়াসা ও শরিফুলহাসানকে আসামি করেছে সিআইডি। এ দুই মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, শরিফুল হাসান ও মাসুদুল মাদক ব্যবসায় জড়িত রয়েছেন। তাঁদের কাছ থেকে ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে। তাঁদের সহযোগী হিসেবে ভূমিকা রাখেন পিয়াসা।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন