আড়াই ঘণ্টা ধরে এভাবে সংঘর্ষ চলার পর রাত ২টা ২৫ মিনিটে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

ঢাকা কলেজের একাধিক ছাত্র প্রথম আলোকে জানান, তাঁদের এক সহপাঠীর ওপর নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা হামলা চালিয়েছেন। এর প্রতিবাদে কলেজের আবাসিক হল থেকে কয়েক শ ছাত্র লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বের হয়ে নিউমার্কেটে যান। এ সময় নিউমার্কেটের কিছু দোকান ভাঙচুর করা হয়। এর পাশাপাশি কিছু ব্যবসায়ীকেও মারধর করা হয়। এরপরই নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে বেরোলে দুই পক্ষের সংঘর্ষ শুরু হয়। আড়াই ঘণ্টা দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়া চলে।

অন্যদিকে ব্যবসায়ীরা বলেছেন, রাতে ঢাকা কলেজের কয়েকজন ছাত্র নিউমার্কেটের একটি ফাস্ট ফুডের দোকানে খাবার খেতে এসেছিলেন। খেয়ে তাঁরা টাকা না দিয়েই চলে যাচ্ছিলেন। এ নিয়ে ছাত্রদের সঙ্গে দোকানের লোকজনের তর্কাতর্কি হয়। এরপরই ঢাকা কলেজের ছাত্ররা এসে দোকান ভাঙচুর করতে থাকেন। পরে ব্যবসায়ীরা একসঙ্গে বের হয়ে আসেন।

default-image

সংঘর্ষ থামাতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করলে ছাত্ররা পিছু হটেন। কিন্তু উত্তেজিত ছাত্ররা দফায় দফায় ব্যবসায়ীদের দিকে তেড়ে যান। পুলিশ সদস্যরা তাঁদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন।

এর আগে নিউমার্কেট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রুমি তাবরেজ প্রথম আলোকে বলেন, নিউমার্কেটের এক ব্যবসায়ী জাতীয় জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন করে বলেন, ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা তাঁদের দোকানে হামলা করেছেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন