default-image

পর্বতারোহী রেশমা আক্তার ওরফে রত্নাকে গাড়িচাপা দেওয়ার মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়েছে। আগামী ৫ এপ্রিল অভিযোগ গঠনের শুনানির নতুন দিন ঠিক করেছেন আদালত। আজ বুধবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস এ আদেশ দেন।

গত বছরের ৭ আগস্ট সকাল পৌনে নয়টার দিকে সংসদ ভবন এলাকায় চন্দ্রিমা উদ্যানের সামনের সড়কে নিহত হন সাইকেল আরোহী রেশমা। রাজধানীর একটি স্কুলে শিক্ষকতাও করতেন তিনি। ওই মামলায় গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা দারুস সালামের নামে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় শেরেবাংলা নগর থানা-পুলিশ । এ মামলায় ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন দারুস সালাম।

জবানবন্দিতে দারুস সালাম বলেন, নিজের গাড়ি নিয়ে তিনি যখন ক্রিসেন্ট লেকের পাশের সড়কে ঢোকেন, তখন সামনে আরেকটি গাড়ি ছিল। হঠাৎ ওই গাড়ি গতি কমিয়ে সড়কের বাঁ পাশে চলে যায়। তখন তাঁর গাড়ির সামনে চলে আসেন সাইকেল আরোহী তরুণী। তাঁর গাড়ির সঙ্গে সাইকেলের ধাক্কা লাগলে ওই তরুণী ছিটকে পড়েন। লোকজনের ভয়ে তিনি দ্রুতবেগে গাড়ি চালিয়ে চলে যান।

বিজ্ঞাপন

রেশমাকে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় গত বছরের ২৭ আগস্ট বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম এস এম দারুস সালাম গ্রেপ্তার হন। গত বছরের ৮ নভেম্বর তিনি জামিনে ছাড়া পেয়েছেন।

পুলিশের সঙ্গে কথা বলে এবং মামলার নথিপত্রের তথ্য অনুযায়ী, রাজধানীর একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন রেশমা। সেদিন সকালে সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যানের সামনের সড়ক ধরে সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। তখন উড়োজাহাজ ক্রসিং থেকে গণভবনের দিকে দুটি কালো বা ধূসর মাইক্রোবাস প্রবেশ করে। সড়ক তখন ফাঁকা ছিল। এ সুযোগে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালিয়ে পেছন থেকে রেশমা আক্তারকে ধাক্কা দিয়ে চলে যান চালক। দুটি গাড়ির কোন গাড়িটি রেশমাকে ধাক্কা দিয়েছিল, তা যাচাই করার জন্য প্রযুক্তির সহায়তা নেওয়া হয়। প্রথমে নাঈম নামের এক চালককে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা এস এম দারুস সালামকে গ্রেপ্তার করা হয়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন