বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক বজলুল রশিদ প্রথম আলোকে বলেন, স্থানীয় ব্যক্তিরা আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া কারখানার নাম বলতে পারেননি। কারখানার বাইরেও কোনো সাইনবোর্ড নেই। প্রায় পাঁচ হাজার বর্গফুট জায়গায় টিনশেডের কারখানাটি গড়ে উঠেছে। সেখানে প্লাস্টিক দিয়ে পলিথিন তৈরি করা হচ্ছিল।

আগুনে পুরো কারখানাটি পুড়ে গেছে বলে জানান বজলুল রশিদ। তিনি বলেন, কারখানাটির ভেতরে প্লাস্টিক মজুত থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। কারখানাটি আবাসিক এলাকায়। চারপাশে বাসাবাড়ি ছিল। এ ছাড়া কারখানার পাশে পানির কোনো ব্যবস্থা ছিল না। আশপাশের বিভিন্ন বাড়ি ও দূরের নদী থেকে পানি এনে আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে হয়েছে। তা ছাড়া কারখানাটির অবস্থান অপ্রশস্ত গলিতে হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশ করতেও সমস্যা হয়েছে বলে জানান বজলুল রশিদ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন