default-image

পুলিশ গতকাল শনিবার সারা দেশে যে ধর্ষণবিরোধী সমাবেশ করেছে, তা লোকদেখানো বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গতকাল পুলিশ সারা দেশে যে ধর্ষণবিরোধী সমাবেশ করেছে, তা একেবারেই লোকদেখানো। একদিকে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চের ওপরে পুলিশ হামলা করেছে, অন্যদিকে তারা ধর্ষণ প্রতিরোধে সমাবেশ করেছে। এটা লোকদেখানো ছাড়া কিছুই না। ধর্ষণের ঘটনার দ্রুত বিচার করা সরকার, প্রশাসন ও পুলিশেরই দায়িত্ব।

আজ রোববার বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। গতকাল দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের আলোচ্যসূচি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল বলেন, ধর্ষণের যে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করা হয়েছে, তা ধর্ষণ প্রতিরোধে একমাত্র উপায় না। সরকার ও সরকারি দলের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে স্থানীয় ক্ষমতাসীনেরা ধর্ষণ করছেন। তাঁরা ছাড় পেয়ে যাচ্ছেন। বিচার হচ্ছে না। এ কারণে ধর্ষণের সাজা বৃদ্ধি করে ধর্ষণ প্রতিরোধ সম্ভব হবে না।

উপনির্বাচন প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে পাবনা–৪, ঢাকা–৫, নওগাঁ–৬ আসনের নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে নতুন নির্বাচনের দাবি জানানো হয়েছে। নির্বাচনে কারচুপি, সন্ত্রাস, এজেন্ট বের করে দেওয়াসহ নানা অপকর্মের প্রতিবাদে আগামীকাল সোমবার বিএনপি সারা দেশের জেলা সদর ও মহানগরে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে। ২০ অক্টোবর প্রতিটি থানা ও উপজেলা সদরে বিক্ষোভ কর্মসূচি করবে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) গতকাল বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, সিইসি নির্লজ্জের মতো কথা বলছেন।

জিনিসপত্রের দাম বাড়া নিয়ে স্থায়ী কমিটি বলেছে, সরকারি মদদপুষ্ট ব্যবসায়ীরা ইচ্ছাকৃতভাবে মূল্য বাড়াচ্ছেন। নিজেদের আখের গোছাতে, জনগণের অর্থ লুটপাটের জন্য চাল, আলুসহ বিভিন্ন জিনিসের দাম বাড়াচ্ছে।

শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানায় স্থায়ী কমিটি।

মন্তব্য পড়ুন 0