বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন নাসির শেখ (২৫), ফরহাদ (২৯), সেলিম (২৬) ও আজাদ (৩৮)। তাঁদের কাছ দুটি অস্ত্র, চারটি মুঠোফোন, ৪ হাজার ৮০০ টাকা, বাসা থেকে চুরি যাওয়া সোনার বার ও চারটি অলংকার উদ্ধার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আজ শনিবার সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, গত ৭ ডিসেম্বর রাতে ওই বাসার জানালার গ্রিল কেটে চুরি হয়। বাসার আলমারি ও ওয়ার্ডরোব ভেঙে প্রায় ২০ ভরি স্বর্ণালংকার ও কিছু টাকা চুরি করা হয়। এ ঘটনার সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ নজরে এলে র‍্যাব তদন্তে নামে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে খন্দকার আল মঈন বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা ধানমন্ডি-মোহাম্মদপুর এলাকাকেন্দ্রিক ছয়-সাতজনের একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সদস্য। প্রত্যেকেই বিভিন্ন পেশার আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে চুরি, ছিনতাইসহ অন্যান্য অপরাধ করে আসছেন। তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

র‍্যাব জানায়, চক্রের অটোরিকশাচালক সদস্য চুরির উদ্দেশ্যে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ফাঁকা বাসা ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের খোঁজখবর নেন। পরে ৬ ডিসেম্বর তিনি ধানমন্ডির ওই বাসার সন্ধান পান। পরে নাসির তাঁর ভাড়া করা মেসে অন্যদের নিয়ে পরিকল্পনা করেন। পরদিন মধ্যরাতে চুরির উদ্দেশ্যে ওই বাসায় যান তাঁরা। এরপর চুরি করা স্বর্ণালংকার সকালে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন