বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ সময় স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ-ভারত কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বাংলাদেশ ও ভারত যৌথভাবে ৬ ডিসেম্বর মৈত্রী দিবস উদ্‌যাপন করতে যাচ্ছে, যা দুই দেশের অকৃত্রিম বন্ধুত্বের দৃষ্টান্ত। ব্যবসা-বাণিজ্য, সংস্কৃতি—প্রতিটি ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ-ভারত একে অপরের পরিপূরক। স্পিকার এ সময়ে মৈত্রী দিবসে অংশগ্রহণের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে। পীরগঞ্জসহ সারা দেশের বিভিন্ন মণ্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে পূজা উদ্‌যাপিত হয়েছে। পীরগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে সরকার তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের বাসস্থান ও অন্যান্য সুবিধা নিশ্চিত করেছে।

সাক্ষাতে ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, বাংলাদেশে নারীদের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। নারীরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়ে উঠছেন।

এ সময় কারিগরি প্রশিক্ষণ, কম্পিউটার প্রশিক্ষণসহ নানা ক্ষেত্রে নারীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা বর্তমান সরকার করেছে বলে উল্লেখ করেন স্পিকার। তিনি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা–বাণিজ্যের প্রসারে ভারতের ধারাবাহিক সহযোগিতা কামনা করেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন