default-image

খাটিয়ায় ‘বাংলাদেশের প্রতীকী লাশ’ নিয়ে রাজধানীতে একটি মিছিল হয়েছে। এর আয়োজকদের দাবি, বর্তমান বাংলাদেশ একটি ‘মৃত রাষ্ট্র’। এই জায়গা থেকে দেশকে ‘উদ্ধার’ করার প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবেই তাঁদের এই মিছিল।

আজ শনিবার বিকেল চারটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশ থেকে ‘মুশতাকসহ সব গুম-খুন-হত্যার প্রতিবাদে খাটিয়া মিছিল’ শীর্ষক এই কর্মসূচি শুরু হয়৷ ‘বাংলাদেশের জনগণ’ ব্যানারে এই কর্মসূচিতে মৌলিক বাংলা নামের একটি সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত কয়েকজন ব্যক্তি অংশ নেন।

কালেমা শাহাদাত পাঠ করতে করতে প্রতীকী মিছিলটি টিএসসি থেকে শাহবাগে পৌঁছালে নীলক্ষেত পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক রইছ হোসেন বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তা উপেক্ষা করে মিছিলটি এগিয়ে চলে। মিছিলটি বাংলা মোটর পর্যন্ত যেতে চাইলে পুলিশের বাধায় এগোতে না পেরে পরীবাগ মোড় ঘুরে শাহবাগ হয়ে টিএসসিতে ফিরে আসে।

default-image

সেখানে কর্মসূচির অন্যতম আয়োজক লেখক ও অ্যাকটিভিস্ট আবু মোস্তাফিজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘বাংলাদেশ রাষ্ট্রে আজ ন্যায়বিচার নেই। সব প্রতিষ্ঠান ধ্বংস হয়ে গেছে। ধ্বংস করা হয়েছে রাষ্ট্রের অন্যতম মূলনীতি গণতন্ত্রকেও। এই বাংলাদেশ তো মৃতই। সেই মৃত বাংলাদেশের প্রতীকী লাশ নিয়ে আমরা খাটিয়া মিছিলটি করলাম, যাতে জনগণ তাঁদের অধিকার ও মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য সচেতন ও সজাগ হয়।’

এদিকে খাটিয়া মিছিল শুরুর দিকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ হয়। সেখানে লেখক ও অ্যাকটিভিস্ট ফরিদ আহমেদ, মৌলিক বাংলার কর্মী নয়ন আহমেদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন
রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন