বাড়িমুখী মানুষের ঢল, টেকনিক্যাল থেকে গাবতলী সড়ক বন্ধ

বিজ্ঞাপন
default-image

লাখো মানুষ ছুটছে বাড়ির দিকে। নৌযান ও ট্রেন বন্ধ থাকায় তারা রাজধানীর বিভিন্ন বাস টার্মিনালগুলোতে ভিড় জমাচ্ছে। সড়কে মানুষের ভিড় বেড়ে যাওয়ায় ট্রাফিক পুলিশের নির্দেশও মানছে না অনেকে। পদচারী মানুষের ভিড় বেড়ে যাওয়ায় রাজধানীর টেকনিক্যাল মোড় থেকে গাবতলীমুখী সড়কে যানবাহন বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। আজ বুধবার রাজধানীর শ্যামলী, টেকনিক্যাল, গাবতলী ও আমিনবাজারে গিয়ে এ দৃশ্য দেখা গেছে।

এতে করে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য ১০ দিনের যে ছুটি ঘোষণা করেছিল সরকার, সে উদ্দেশ্যই নষ্ট হচ্ছে। বরং ঢাকা থেকে এভাবে ভিড়ভাট্টা ও গাদাগাদি করে দেশের বিভিন্ন স্থানে মানুষ যাওয়ার কারণে দেশব্যাপী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করেছেন কেউ কেউ। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেকে ১০ দিনের সরকারি এই ছুটিকে ‘করোনা ভ্যাকেশন’ নাম দিয়েছেন। যানবাহন চালু রেখে সরকারি ছুটির ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

গতকাল সোমবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় আগামীকাল ২৬ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে গণপরিবহন চলাচল বন্ধের ঘোষণা দেয়। আগামীকাল থেকে সব গণপরিবহন বন্ধ হয়ে যাবে। আজ শেষ দিনের মতো ঢাকার বাইরে যাওয়ার সুযোগ নিয়েছে লাখ লাখ মানুষ।

আজ বেলা দেড়টায় শ্যামলী থেকে গাবতলীর দিকে যাওয়ার রাস্তায় হাজার হাজার মানুষ হাঁটা শুরু করলে সড়কটি বন্ধ করে দেয় পুলিশ। এ সময় এ সড়কে ভয়াবহ যানজট তৈরি হয়। যানজট ছড়িয়ে পড়ে আমিন বাজার পর্যন্ত। ঘরে ফেরা মানুষকে বাসে উঠতে গিয়ে ধাক্কাধাক্কি করতে দেখা গেছে।

তবে এর আগে গতকালই সারা দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। গত ২৪ মার্চ থেকে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সব ধরনের যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। গত ২৪ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট। ৪ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট।

জয়পুরহাটগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রী ফাহিম চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের অফিস কাল থেকে ছুটি। আজ আধা বেলা অফিস করার পর ছুটি দেওয়া হয়েছে। ঢাকায় থাকলে সংক্রামক হওয়ার আশঙ্কা বেশি, বাড়িতে গেলে বেশি নিরাপদে থাকব। সে কারণে বাড়ি যাচ্ছি।’

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, গণপরিবহন চালু রেখে ১০ দিনের সরকারি এই ছুটির সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী। একে সরকারের দূরদর্শিতার অভাব বলে তিনি মনে করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন