বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তাপস কুমার পাল জানান, অর্থ পাচারের অভিযোগে গত বছরের আগস্ট মাসে এম এন এইচ বুলুর বিরুদ্ধে বনানী থানায় মামলা করে পুলিশ। ওই মামলা তদন্ত করে গত বছরের ৫ জুলাই বুলুর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। ওই অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে আদালত পলাতক বুলুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। আগামী ৯ ডিসেম্বর গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন আদালত।

এর মধ্যে মঙ্গলবার বুলু আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চান। শুনানি নিয়ে আদালত বুলুর জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, মামলায় বুলুর বিরুদ্ধে ১২ লাখ টাকা পাচারের অভিযোগ আনা হয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন