বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ সোমবার রাজধানীর পল্টন এলাকা থেকে মোহাম্মদ শামসুদ্দীন নামে এ চক্রের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। তাঁর বাড়ি ফেনীতে। গ্রেপ্তারের পর তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে উত্তরা থেকে পাচার হতে যাওয়া এক নারী ও তিন পুরুষকে উদ্ধার করা হয়েছে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১–এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবদুল্লাহ আল মোমেন বলেন, বিদেশে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সহজ–সরল মানুষকে ফাঁদে ফেলে তাঁদের পাচার করছিল চক্রটি। ভুক্তভোগীদের অধিকাংশই নারী। তিনি আরও বলেন, দুবাই বসে জিয়া নামের এক ব্যক্তি এই চক্র নিয়ন্ত্রণ করেন। দুবাই ছাড়াও সিঙ্গাপুর ও প্রতিবেশী দেশ ভারতে নারী পাচার করেন চক্রের সদস্যরা।

র‍্যাব জানায়, প্রথমে চক্রটি বিনা খরচে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে নারীদের আকৃষ্ট করত। এই ফাঁদে পা দিলে পরে খরচের নানা খাতের কথা তুলে ধরে তাঁদের কাছ থেকে আদায় করা হতো ৩০-৪০ হাজার টাকা। এরপর বিদেশে চাকরির ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে সেগুলো দেখিয়ে পাচার করা হতো তাঁদের। এই ফাঁদে পা দিতেন অনেক পুরুষও।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন