বিজ্ঞাপন

পুলিশ কর্মকর্তা খন্দকার হেলালউদ্দিন আহমেদ বলেন, এখন পর্যন্ত যে তথ্য জানা গেছে তা হলো, ভুক্তভোগী নারীর স্বামী অনেক দিন থেকে বিমান পোলট্রি কমপ্লেক্সের নিরাপত্তারক্ষী হিসেবে চাকরি করে আসছেন। অপর দিকে মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী ক্যানসারে আক্রান্ত। আসামি মোহাম্মদ আলী ওই নিরাপত্তারক্ষীর স্ত্রীকে তাঁর আজিমপুরের বাসায় কিছুদিনের কাজে যোগ দেওয়ার জন্য প্রলুব্ধ করেন। পরে ওই নারী আজিমপুরের বাসায় কাজে যোগ দেন। তবে বাসায় ওই নারীকে দুবার ধর্ষণ করেছেন আসামি, যা বাদী মামলায় অভিযোগ করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা লালবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, গুরুত্বের সঙ্গে মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন