বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, পারিবারিক জমি নিয়ে বিরোধের জেরে কথা–কাটাকাটির একপর্যায়ে শহিবুর এবং তাঁর ছেলে বাদশাহ ও ফয়সাল মিলে রড ও লাঠি দিয়ে রুবিনার মাথায় আঘাত করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাড্ডা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাহমুদ হাসান বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। নিহত রুবিনার মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহত রুবিনার লাশ ঢামেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

আহত হাসিদুল প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর দাদা মৃত হাজি আলী আকবর দুই বিয়ে করেছেন। প্রথম সংসারের সন্তান তাঁর বাবা ও নিহত ফুফু রুবিনা বেগম। দাদার দ্বিতীয় পক্ষের সন্তান শহিবুর ও তাঁর ছেলেরা তাঁদের ওপর হামলা করেছেন।

এ বিষয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত বাদশাহ ও ফয়সালের মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার কল দিলেও তাঁরা রিসিভ করেননি।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দুই সন্তানের মা রুবিনা বেরাইদ এলাকায় পরিবারের সঙ্গে থাকতেন। তাঁর স্বামী শরিফ হোসেন স্থানীয় মুদিদোকানদার।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন