বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশকে মরিয়মের স্বজনেরা বলেছেন, মরিয়ম ফজরের নামাজ পড়ে কুড়াতলির বাসা থেকে বেরিয়েছিল। যমুনা ফিউচার পার্কের কাছেই তাদের বাসা।

ভাটারা থানার ওসি সাজেদুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, এখন পর্যন্ত মরিয়মের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সুরতহালে তার মাথায় আঘাতের একটি চিহ্ন পাওয়া গেছে। ওই আঘাতে তার মৃত্যু হয়েছে, নাকি অন্য কোনো কারণ আছে তা ময়নাতদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। শিশুটির মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে আছে।

মরিয়মের বাবা রনি মিয়া গাড়িচালক। তার মায়ের নাম রোকেয়া বেগম। পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনাস্থলের সিসি টিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করছে পুলিশ।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন