স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে, ভাতিজি, চাচাতো বোনসহ পরিবারের মোট আটজন সদস্যকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা থেকে চিড়িয়াখানায় আসেন আবদুস সাত্তার। তাঁরা সকাল সাড়ে ১০টার দিকে চিড়িয়াখানায় প্রবেশ করে বের হন বেলা সাড়ে তিনটার দিকে।

আবদুস সাত্তার বলেন, ‘এর আগে আমি এসেছিলাম। তবে পরিবারের কেউ এখানে এর আগে আসেনি। তাই পরিবারের সবাইকে এখানে নিয়ে এলাম। চিড়িয়াখানার ভেতরে প্রায় সব জায়গা ঘুরে দেখেছি। ভালোই লেগেছে।’

দর্শনার্থীরা ব্যক্তিগত গাড়ি, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও বাসে করে চিড়িয়াখানায় আসছেন। চিড়িয়াখানার দিকে যাত্রীর চাপ বেশি থাকায় অন্য রুটের বাসও এখানে আসছে।

গতকাল কোরবানির ব্যস্ততা থাকায় ঘুরতে বের হতে না পেরে আজকে স্ত্রী ও ছেলেমেয়েকে নিয়ে ঘুরতে আসেন বেসরকারি চাকরিজীবী তবিবুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আজ প্রায় সারা দিনই পরিবার নিয়ে চিড়িয়াখানায় কাটিয়ে দিলাম।’

বাঘ, সিংহ, জিরাফ থাকা অংশ বাচ্চারা বেশি পছন্দ করেছে বলেও জানান তিনি।

চিড়িয়াখানার ফটকে দায়িত্বরত শাওন হোসেন বলেন, অনেক মানুষ আজকে চিড়িয়াখানায় আসছে। তবে গত ঈদের তুলনায় এবার অনেক মানুষ কম আসছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন