বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ সময় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সব বর্ষের শিক্ষার্থী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থী নাবিউল হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিচার পেতে আইনি প্রক্রিয়ার ব্যয়ভার বহন করার জন্য আমরা বিভাগ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অনুরোধ করব। পাশাপাশি সাবরিনার পরিবারকে যেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহায়তা প্রদান করা হয়, সেই দাবিও জানানো হবে।’

আরেক শিক্ষার্থী মাহফুজ নাফি বলেন, ‘আমাদের প্রিয় সহপাঠীকে স্মরণ করার জন্য এ আয়োজন করেছি।’ এ সময় সাবরিনা হত্যার দ্রুত বিচার ও সর্বোচ্চ সাজার দাবি করেন তিনি।

গত শনিবার ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের স্নাতক (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের সাবরিনা আক্তার মিতু নিহত হন। নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী পৌরসভার রামপুরা এলাকায় কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘাতক চালককে আটক করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।

সাবরিনা আক্তার মিতু সোনাইমুড়ি উপজেলার বজরা ইউনিয়নের শিলমুদ গ্রামের মর্তুজা ভূঁইয়ার মেয়ে। তিন বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন বড়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন