বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লেকের পাড়ে দাঁড়িয়ে বাতাস উপভোগ করছিলেন শারমিন আক্তার, তাঁর স্বামী জসিম উদ্দিন ও মেয়ে জাইফা ইবনা।

শারমিন আক্তার বলেন, ‘ঈদের দিন বের হওয়া হয়নি। তাই সবাইকে নিয়ে বের হলাম। রমনায় এসে ভালোই লাগছে।’

default-image

মেয়ে জাইফা ইবনা বলে, নদীটা (লেক) সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে।
রমনা পার্কের ফটকে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আনসার সদস্য আবদুল হান্নান বলেন, আজকে দর্শনার্থীদের অনেক ভিড়। গতকাল ঈদের দিনও ভিড় ছিল।

হাতিরঝিলে দেখা যায়, ঝিলের দুই পাশে কৃষ্ণচূড়া, রাধাচূড়া, জারুলসহ বাহারি ফুলে ফুটে আছে। ঝিল ছুঁয়ে আসা হালকা বাতাসে দর্শনার্থীরা যেন উদ্বেলিত। কেউ পাড়ে বসে গল্প করছেন। অনেকে নৌকায় করে ঘুরছেন। পাড়ে থাকা খাবারের দোকানগুলোতে বেশ ভিড়। খেতে খেতে গল্প করছেন তাঁরা। বাচ্চারাও ছুটছে ইচ্ছেমতো।

স্ত্রী আর সন্তানকে নিয়ে হাতিরঝিলে ঘুরতে আসেন বেসরকারি চাকরিজীবী সিরাজুল ইসলাম। ঢাকা শহরে তাঁদের এটাই প্রথম ঈদ। ঈদের দিন রমনা পার্কে বেড়াতে গেছেন। আজ হাতিরঝিলে ঘুরতে এসেছেন।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, আবহাওয়া খুব সুন্দর। গাছপালা, ফুল, বাতাসে পরিবেশটাও সুন্দর। ঢাকায় মানুষও কম। ঢাকায় প্রথম ঈদ হলেও ভালোই লাগছে।

মা, স্ত্রী, দুই সন্তান, ছোট ভাই ও তাঁর স্ত্রীসহ মোট ছয়জনে মিলে হাতিরঝিলে ঘুরতে আসেন মো. মোখলেস। তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন কোথাও যাইনি। তাই আজকে ঘুরতে বের হলাম। পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরছি, ভালোই লাগছে।’

default-image

ধানমন্ডি লেকে গিয়ে দেখা যায়, লেকের পাড়ে তরুণ-তরুণীরা যেমন বসে আছেন, তেমনি পরিবার নিয়েও অনেকে এসেছেন। বিকেলের মিষ্টি বাতাসে গল্প করে সময় পার করছেন তাঁরা। আবার কেউ একা একা বসে।

চুড়ি, মালা, খেলনা, ওয়াটার রাইড, ফাস্ট ফুডের দোকান, ঝালমুড়ির দোকানসহ নানা আয়োজনে যেন অনেকটাই মেলায় রূপ নিয়েছে এই লেকের পাড়।
মো. মিঠু ছবি তুলতে চাইছিলেন, কিন্তু তাঁর ছোট্ট মেয়ে মরিয়ম জাহান কিছুতেই পোজ দিচ্ছিল না। সে তার মতো ব্যস্ত।

default-image

ঈদে কুষ্টিয়ার গ্রামের বাড়ি না যাওয়ায় কর্মস্থল নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকায় এক আত্মীয়ের বাসায় এসেছেন মিঠু। মেয়ে বাসায় না থাকতে চাওয়ায় তাকে নিয়ে ধানমন্ডি লেকে ঘুরতে আসেন। তিনি বলেন, ‘ও ঘুরতে চাইছিল, সে জন্য ওকে এখানে ঘুরতে নিয়ে এসেছি। এখানে এসে মেয়ে তো খুব খুশি। তা ছাড়া এ রকম সুন্দর পরিবেশ পেয়ে আমারও ভালো লাগছে।’

যখন মিঠুর সঙ্গে কথা হচ্ছিল, তখন ছোট্ট মরিয়ম জাহান গাছ থেকে পাতা ছিঁড়ছিল। তোমার কি ভালো লাগছে? এমন প্রশ্নের করলে না তাকিয়েই সে বলে, ‘হ্যাঁ, খুব ভালো লাগছে।’

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন