প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, সকালে লঞ্চটির তৃতীয় তলায় ভিআইপি কেবিনে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র মেরামতের সময় আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পরে তা দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলার কেবিনগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিকাণ্ডের সময় লঞ্চের শ্রমিকেরা কেবিনগুলোতে থাকা টিভি ও অন্যান্য জিনিসপত্র সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন।

ঢাকা বিভাগের ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক দীন মনি শর্মা বলেন, তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দেবে। ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

গত বছরের ডিসেম্বরে ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে ৪৫ জনের বেশি নিহত হন। সরকারি হিসাবে নিখোঁজ ব্যক্তির সংখ্যা অন্তত ৩০। ঢাকা থেকে বরগুনাগামী লঞ্চটিতে প্রায় ৮০০ যাত্রী ছিলেন।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন