বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি, পাঁচ শ্রমিককে মালিকপক্ষের ‘মারধরের’ প্রতিবাদ ও বেতন-ভাতা বাড়ানোর দাবিতে গত সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মিরপুরের পোশাকশ্রমিকেরা কচুক্ষেত, মিরপুর ১৩ ও ১৪ নম্বরের প্রধান সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। গত বুধবার তাঁরা মিরপুর ১৪ নম্বরে চারটি পোশাক কারখানা ভাঙচুর চালান, একটি পোশাক কারখানার ১০ কর্মকর্তাকে মারধর করে জখম করেন।

এ ছাড়া তাঁরা ওই দিন মিরপুর ১৪ নম্বরে নোটারি স্কুল অ্যান্ড কলেজের কাছে স্থানীয় একটি আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর ও দুটি মোটরসাইকেলে আগুন দেন। ওই দিন পোশাকশ্রমিকেরা মিরপুর ১০ নম্বরে ট্রাফিক পুলিশের বক্সেও ভাঙচুর চালান। এসব ঘটনায় কাফরুল থানায় পৃথক পাঁচটি ও ট্রাফিক বক্স ভাঙচুরের ঘটনায় মিরপুর থানায় একটি মামলা হয়।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান আজ বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখে পাঁচ মামলায় এখন পর্যন্ত ১০ পোশাকশ্রমিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের মুক্তির দাবিতে আজ সকালে পোশাকশ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। তবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন