বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অনুষ্ঠানে স্তন ক্যানসার থেকে আরোগ্য লাভ করা বুয়েটের প্রাক্তন ছাত্রী নবনিতা ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ক্যানসার অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও জেনারেল সেক্রেটারি মাসুমুল হক কর্মশালা পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে বুয়েট বিএমইএসের উপদেষ্টা মুহাম্মদ তারিক আরাফাত বক্তব্য দেন।

তিনি বুয়েট বিএমইএস স্টুডেন্ট চ্যাপ্টার গঠন করার উদ্দেশ্য ও চ্যাপ্টারের পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম তুলে ধরেন।

মুহাম্মদ তারিক আরাফাত বলেন, ক্যানসারের মতো দুরারোগ্য ব্যাধি নির্মূলে প্রয়োজন স্বয়ংসম্পূর্ণ স্বাস্থ্য খাত, যা বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ার ও ডাক্তারদের সমন্বিত প্রচেষ্টায় সম্ভব।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে যেসব নারী মারা যান, তাদের মধ্যে অনেকেই স্তন ক্যানসারে মারা যান। প্রাথমিকভাবে ক্যানসার শনাক্ত করা গেলে এবং সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসা পেলে সুস্থ হওয়া সম্ভব। রক্ষণশীল পরিবারের নারীরা সাধারণত জড়তা থেকেই রোগ সম্পর্কে কাউকে কিছু জানাতে চান না। জড়তা কাটিয়ে প্রাথমিক অবস্থায় নিরাময়ের ব্যবস্থা নিতে হবে। বুয়েট বিএমইএসের উদ্যোগে বুয়েটে প্রথমবারের মতো স্তন ক্যানসারবিষয়ক নীরবতা ভাঙার উদ্দেশ্যে এই কর্মশালা ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মাসুমুল হক ক্যানসারের প্রাথমিক লক্ষণ, স্ক্রিনিংয়ের উপায়, স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের বিস্তারিত ধারণা দেন। নবনিতা ইসলাম অনুষ্ঠানে পিএইচডিরত অবস্থায় ক্যানসার ধরা পড়ার পর চিকিৎসা থেকে শুরু করে শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্যানসারকে মোকাবিলা করার অনুপ্রেরণা জোগানো গল্প বলেন।

অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে অংশগ্রহণকারীদের জন্য কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং অনুষ্ঠান শেষে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন