বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সেলিনা আক্তারের বাড়ি নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার মশন্দি গ্রামে। তিনি বারডেম হাসপাতালে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাবার নাম সাদের খান। তাঁর স্বামী জুয়েল আহমেদ বেসরকারি একটি কোম্পানির স্টোর ম্যানেজার। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে থানায় নেওয়া হয়েছে।

সেলিনার বড় ভাই আমিরুল ইসলাম বলেন, দেড় বছর আগে একই গ্রামের জুয়েল আহমেদের সঙ্গে সেলিনার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাঁরা সম্পর্কে মামাতো-ফুপাতো ভাইবোন।

হাতিরঝিল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) অনাথ মিত্র বলেন, ৯৯৯ জরুরি নম্বরে ফোন পেয়ে সেলিনা আক্তারের বাসায় যায় পুলিশ। দরজা ভেঙে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না প্যাঁচানো অবস্থায় সেলিনার লাশ দেখতে পায় তারা।

এসআই আরও বলেন, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে তদন্ত সাপেক্ষে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে। সেলিনার মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে রয়েছে।

রাজধানী থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন