default-image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় (আজ রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত) করোনাভাইরাসে সংক্রমিত আরও ১ হাজার ৩০৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। একই সময় করোনায় সংক্রমিত আরও ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দেশে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৮১৫। এর মধ্যে ৫ হাজার ৮০৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ১৫ হাজার ১০৭ জন।

বিজ্ঞাপন

আজ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ হাজার ১০৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার বিবেচনায় সংক্রমণ শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

গতকালের তুলনায় আজ নতুন রোগী, পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার, মৃত্যু—সবই বেড়েছে। গতকাল নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছিল ১ হাজার ৯৪ জন। মৃত্যু হয়েছিল ১৯ জনের। ১০ হাজার ৯৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার সংখ্যা বিবেচনায় রোগী শনাক্তের হার ছিল ৯ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

দেশে এখন পর্যন্ত সংক্রমণ বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

দেশে প্রথম করোনায় সংক্রমিত রোগী শনাক্তের ঘোষণা আসে চলতি বছরের ৮ মার্চ। প্রথম মৃত্যুর তথ্য জানানো হয় ১৮ মার্চ।

জনস্বাস্থ্যবিদেরা বলছেন, দেশের করোনা পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এর মধ্যে সরকার আশঙ্কা করছে, শীতে আবার সংক্রমণ বেড়ে যেতে পারে।

জনস্বাস্থ্যবিদেরা আরও বলছেন, টিকা আসার আগপর্যন্ত নতুন এই ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধের মূল উপায় হলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা। মাস্ক পরা, কিছু সময় পরপর সাবান-পানি দিয়ে হাত ধোয়া, জনসমাগম এড়িয়ে চলা এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা। কিন্তু এই স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলার ক্ষেত্রে ঢিলেঢালা ভাব দেখা যাচ্ছে। এতে সংক্রমণ আবার বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0