default-image

সুনামগঞ্জের ধরমপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলমগীর কবীর (৫৫) কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গতকাল রোববার রাতে ঢাকার মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ টিটো মিঞা এবং ধরমপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ঝন্টু সরকার এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

ঝন্টু সরকার জানান, আলমগীর কবীর সর্দি, জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন। তাঁর করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয় গত ২১ আগস্ট। শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় ওই দিন সন্ধ্যায় তাঁকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকার মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাত ১১টা ৪০ মিনিটে তিনি মারা যান।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ধরমপাশা উপজেলায় মারা যাওয়া দ্বিতীয় ব্যক্তি হলেন আলমগীর কবীর। এর আগে গত ১৯ জুলাই সদর ইউনিয়নে শফিকুল ইসলাম (৫০) নামের এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়।

বিজ্ঞাপন

উপজেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ জন। এর মধ্যে ৩২ জন সুস্থ হয়েছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোকাররম হোসেন বলেছেন, আলমগীর কবীর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে উপজেলা পর্যায়ের দলীয় কাজে যে শূন্যতা দেখা দেবে, তা পূরণ হওয়ার নয়।

বিজ্ঞাপন

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু তালেব প্রথম আলোকে বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে মাস্ক ব্যবহার করাসহ লোকজনকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের চেষ্টা করা হচ্ছে।

মন্তব্য পড়ুন 0