default-image

বিশ্বের অন্য দেশের মতো আমেরিকাতেও ক্রমে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। এই দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিন হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত মানুষের সংখ্যা ৬১ ছাড়িয়ে গেছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আমেরিকায় ৫০ জনের বেশি লোকের কোনো সমাবেশ না করার নির্দেশনা জারি হয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস নিয়ে কৌতুক করে ফেঁসে গেছেন এক ব্যক্তি। এ ছাড়া তাঁর ওই কৌতুকের কারণে ফেঁসে গেছেন একটি ফ্লাইটের যাত্রীরা। কারণ, তাঁর কারণেই আমেরিকান এয়ারলাইনসের ডালাস থেকে নাশভিলের ফ্লাইটটি নির্ধারিত সময়ের প্রায় আট ঘণ্টা পর ছেড়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছিলেন ওই ফ্লাইটের যাত্রীরা।

নিউইয়র্ক ডেইলি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত ব্যক্তি আমেরিকান এয়ারলাইনসের ডালাস থেকে নাশভিলের ফ্লাইটের যাত্রী ছিলেন। ফ্লাইটটি ছাড়ার নির্ধারিত সময় ছিল ১৪ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়। কিন্তু ফ্লাইট ছাড়ার ঠিক আগমুহূর্তে ওই যাত্রী দাবি করেন, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এ কথা শুনে ফ্লাইটের যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই ফ্লাইটের একজন যাত্রী বলেন, ‘ওই যাত্রী যখন বললেন, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, তখন সবার মধ্যেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। কারণ, কেউ জানে না এই ঘটনার পর কী হতে চলেছে। যাত্রীরা এটাও জানতেন না যে, ওই ব্যক্তি প্রকৃত অর্থেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, নাকি এটা নিছক কৌতুক।’

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ঘটনার পর বিশৃঙ্খলা এড়াতে ওই ফ্লাইটে পুলিশ উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত যাত্রীকে নামিয়ে নেয়। পরে তাঁর সঙ্গে কথা বলে ও পরীক্ষা করে দেখা যায়, ওই যাত্রী আসলে মিথ্যা বলেছেন। তিনি মূলত করোনাভাইরাস নিয়ে এক ধরনের কৌতুক করেছেন। আর এতেই সবাই ভয়ে অস্থির।

ওই ফ্লাইটের আরেকজন যাত্রী বলেন, এ ঘটনার পর অভিযুক্ত যাত্রীকে পুলিশ নামিয়ে নিয়ে যায়। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একজন সদস্য এসে ঘটনার ব্যাখ্যা করে বলেন, ওই যাত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নন। তিনি আসলে করোনাভাইরাস নিয়ে কৌতুক করে মজা দেখতে চেয়েছিলেন। তাই এ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

তবে এ ঘটনার পর ওই ফ্লাইটের কয়েকজন ক্রু ও যাত্রী যেতে অস্বীকৃতি জানান। কয়েকজন ক্রু ও যাত্রীকে ছাড়াই নির্ধারিত সময়ের প্রায় আট ঘণ্টা পর ওই ফ্লাইট যাত্রা শুরু করে।

আমেরিকান এয়ারলাইনস জানিয়েছে, করোনাভাইরাস নিয়ে কৌতুক করে যাত্রীদের আতঙ্কিত করায় অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে তাঁর নাম প্রকাশ করা হয়নি।

বিজ্ঞাপন
করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন