default-image

চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবীদের মধ্যে ১৫ জনকে পুরস্কৃত করতে যাচ্ছে সরকারি-বেসরকারি একটি যৌথ উদ্যোগ। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, জাতিসংঘের স্বেচ্ছাসেবী কর্মসূচি-ইউএনভি বাংলাদেশ এবং ওয়াটারএইড এ পুরস্কার দেবে। পুরস্কারের নাম দেওয়া হয়েছে, ‘আইভিডি বাংলাদেশ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০’।

এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কোনোরূপ স্বীকৃতিপ্রাপ্তির অঙ্গীকার বা প্রত্যাশা ছাড়াই শুধু মানবিক কারণে যাঁরা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছেন, তাঁদের মধ্য থেকে ১৫ জনকে পুরস্কৃত করা হবে। স্বেচ্ছাসেবাকে উৎসাহিত করতে আগামী ৫ ডিসেম্বর বিশ্বব্যাপী ‘ইন্টারন্যাশনাল ভলান্টিয়ার ডে’ (আইভিডি) উদযাপন করা হবে। দিবসটি উপলক্ষে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ পুরস্কারের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘ভলান্টিয়ার ফর কোভিড-১৯ রেসপন্স অ্যান্ড রিকভারি’। এ পুরস্কারের জন্য আগ্রহী স্বেচ্ছাসেবীদের দক্ষতা মূল্যায়নের উদ্দেশ্যে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আয়োজকেরা।

ক্রেস্ট ও সনদ ছাড়াও শীর্ষ ৫ স্বেচ্ছাসেবী যথাক্রমে ১ লাখ, ৭৫ হাজার, ৫০ হাজার, ৩০ হাজার ও ২০ টাকা পুরস্কার পাবেন। ৬ থেকে ১৫তম অবস্থানধারীরা পাবেন ক্রেস্ট ও সনদ। নির্দেশনা অনুযায়ী আবেদনকারীদের প্রাথমিকভাবে তাঁদের কাজের বিবরণ ও ব্যক্তিগত তথ্য জমা দিতে হবে। এ–সংক্রান্ত নির্দেশনা www.unvolunteersbd.orgwww.wateraid.org/bd ওয়েবসাইটে এবং ডিওয়াইডি সোশ্যাল মিডিয়া https://www.facebook.com/departmentofyouthdevelopmenthq প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যাবে। আবেদন ফরম পাওয়া যাবে এই লিংকে https://rb.gy/kwcv9o। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৯ নভেম্বর।

মন্তব্য পড়ুন 0