বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ১ হাজার ১৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১ দশমিক ৫১।

২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে নগরের ১৩ জন এবং নগরের বাইরের বিভিন্ন উপজেলার ৪ জন। মারা যাওয়া একজন উপজেলার বাসিন্দা।

আগের দিন চট্টগ্রামে ১ হাজার ২৩১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ৩৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ছিল ৩। এদিন করোনায় দুজন মারা যান।

এর আগের দিন চট্টগ্রামে ১ হাজার ৭৩ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ৩৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ছিল ৩। সেদিন করোনায় তিনজন মারা যান।

দেশে গত দুই দিনে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও নতুন রোগী কিছুটা বেড়েছে। মাঝে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা হাজারের নিচে নামলেও, দুদিন ধরে তা আবার হাজারের বেশি। অবশ্য পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ৫-এর নিচেই আছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, জাতীয় পর্যায়ে পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৪৯। এ নিয়ে টানা আট দিন রোগী শনাক্তে হার ৫-এর নিচে রয়েছে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্ধারণ করা মানদণ্ড অনুযায়ী, কোনো দেশে টানা দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে রোগী শনাক্তের হার ৫-এর নিচে থাকলে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আছে বলে ধরা হয়।

চট্টগ্রামে গত বছরের ৩ এপ্রিল প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন। এরপর ৯ এপ্রিল ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম কোনো ব্যক্তি মারা যান।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন