করোনা

চিকিৎসক ও চিকিৎসা-সহকারীদের সুরক্ষায় চীনপ্রবাসীদের উদ্যোগ

বিজ্ঞাপন
default-image

এক মহাবিপর্যয়ের সামনে আজ আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ। আমাদের চিকিৎসাব্যবস্থা আজ সম্পূর্ণ ভেঙে পড়ার মুখে। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধটা আজ আমাদের সবার। আমরা সবাইই যেকোনো মুহূর্তে আক্রান্ত হতে পারি। আক্রান্ত হতে পারে আমাদের প্রাণপ্রিয় আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব। তাই আজ সময় এসেছে নিজেদের কাঁধে দায়িত্ব তুলে নেওয়ার। করোনাভাইরাস যেহেতু কোনো বাছবিচার করবে না কার দোষ ছিল, কার দায় ছিল, কার কী করা উচিত ছিল, সেহেতু স্রেফ সময় নষ্ট না করে আমাদের এখনই এগিয়ে আসতে হবে প্রতিরোধে।

এ যুদ্ধটায় আমি–আপনি সবাই যোদ্ধা। আর প্রথম সারির যোদ্ধারা হচ্ছেন আমাদের চিকিৎসায় নিয়োজিত মানুষ। তাঁদের নিরাপত্তা দিতে পারলেই তাঁরা আমাদের বাকিদের জীবন রক্ষায় কাজ করে যেতে পারবেন নিঃশঙ্কচিত্তে। তাঁরা যেহেতু নিজেদের জীবনের মায়া না করে আমাদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছেন, কাজেই তাঁদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্ব। দায়িত্বশীল কেউ এগিয়ে না এলে আমরাই এগিয়ে আসব। জীবনটা আমাদের, তাই বাঁচার লড়াইটা আমাদেরই করে যেতে হবে। মনে রাখবেন, আমাদের হাতে সময় একেবারেই নেই।

প্রাথমিকভাবে আমরা ফেসবুকে ‘হিউম্যানস ফর বাংলাদেশ, ফাইট এগেইন্সট কোভিড-১৯ অর্গানাইজিং কমিটি’ নামের একটি গ্রুপের মাধ্যমে সবার কাছ থেকে অর্থসহায়তা কামনা করছি। এই অর্থ দিয়ে আমরা চীন থেকে মেডিকেল ইকুইপমেন্ট (মাস্ক, পিপিই, ইত্যাদি) ক্রয় করে বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসায় নিয়োজিত যোদ্ধাদের কাছে পৌঁছে দেব। আপনাদের সহায়তা আর ভালোবাসায় আমরা আশা করছি এক লাখ মাস্ক আর এক হাজার পিপিই তাদের কাছে পৌঁছে দিতে পারব।

সম্পূর্ণ ব্যাপারটিতে চূড়ান্ত স্বচ্ছতা বজায় রাখার ব্যাপারে আমরা সর্বাধিক অগ্রাধিকার দেব। আপনাদের কষ্টের প্রতিটি টাকার হিসাব আমরা এক্সেল শিটে উন্মুক্ত রাখব সবার পর্যবেক্ষণের জন্য। ফেসবুকের ফান্ড্রাইজিং টুলস বাংলাদেশ থেকে কাজ করে না বিধায় আমরা গুগল এক্সেল শিটের ব্যবহার করছি। এই লিংকে ক্লিক করে আপনারা টাকাপয়সার হিসাবটি পাবেন সব সময়, https://docs.google.com/…/1pTw5UXE5Fs39X0Ti47hxMc_Gmc…/edit…। আপনাদের যেকোনো সুপরামর্শ সাদরে গৃহীত হবে। আমাদের সবার মনের আশা পূর্ণ হোক। আমাদের ভালোবাসায়, আশায়, আর চেষ্টায় কাছের মানুষগুলো ভালো থাকুক।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন