জরুরি সেবায় পাশে থাকবে ই-ক্যাব

বিজ্ঞাপন
default-image

করোনাভাইসের বিস্তারের এ সময় ব্যবসার চেয়ে দেশের মানুষের সমস্যা ও তাদের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে পালিত হলো ই-কমার্স দিবস। গতকাল মঙ্গলবার ‘মানবসেবায় ই-কমার্সের ডাক’ স্লোগানে দিবসটি পালন করেছে ই-কমার্স সংগঠন ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব)। এ দিবস উপলক্ষে অনলাইন আলোচনা ও মানবিক সেবামূলক পদক্ষেপ মানবসেবা ডট কম উদ্বোধন করার কথা জানায় সংগঠনটি।

দিবস পালনে ই-ক্যাবের উদ্যোগে আয়োজিত অনলাইন আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলমসহ ই-ক্যাবের প্রতিনিধিরা।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই সময়ে ই-কমার্স লেনদেন তুলনামূলক নিরাপদ। কারণ, ১০০ মানুষ ঘর থেকে বের হওয়ার পরিবর্তে যদি একজন তাদের জরুরি পণ্য ঘরে পৌঁছে দিতে পারে, এটা একটা ভালো দিক। করোনার এই সময়ে ই-কমার্স বিস্তৃত হয়ে সাধারণ মানুষের পর্যায়ে সেবা দিচ্ছে, এটা একটা বড় সহযোগিতা। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে আমরা এই সেবাদাতাদের পাশে থাকব।’

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল যে আজকের দুনিয়ায় ডিজিটাল সেবা কতটা অপরিহার্য। বর্তমান সময়ে যখন সবকিছু বন্ধ হয়েছে, তখন ই-কমার্স এবং ইন্টারনেট সেবা দেশের লাইফলাইনে পরিণত হয়েছে।’

ই-ক্যাবের সভাপতি শমী কায়সার বলেন, ‘এই দুর্যোগপূর্ণ সময়ে ই-ক্যাবের সদস্যদের নিয়ে জনগণের পাশে রয়েছে ই-ক্যাব। এই সময়ে ব্যবসাকে প্রাধান্য না দিয়ে মানুষের সেবাকে প্রাধান্য দিয়েছি। করোনা পরিস্থিতিতে ই-ক্যাবের সদস্যদের মাঝে একটি ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কিত জরিপ চালানো হবে। প্রায় কয়েক হাজার কোটি টাকার ব্যবসায়িক ক্ষতির মধ্যে পড়েছে এ খাত।’

ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহেদ বলেন, ‘জরুরি পরিস্থিতিতে ই-ক্যাব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। ই-ক্যাবের পক্ষ থেকে মানবসেবা নামের একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। যার মাধ্যমে দরিদ্র ও দিন এনে দিন খাওয়া মানুষদের পাশে দাঁড়াচ্ছে ই-ক্যাব।’ বিজ্ঞপ্তি

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন