বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক হাসান শাহরিয়ার কবিরের দাবি, হিজড়া জনগোষ্ঠীকে আয়োজন করে টিকা দেওয়ার ঘটনা দেশে এটাই প্রথম। কোনো জনগোষ্ঠী যাতে বাদ না পড়ে তাই এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব হিজড়াকে টিকার আওতায় আনা হবে। তাঁদের অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হচ্ছে।

টিকাদান শুরুর আগে থেকেই মিলনায়তনে জড়ো হন নগরের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা হিজড়ারা। তাঁদের মধ্যে শুরু থেকে একধরনের উচ্ছ্বাস ছিল। তবে অনেকে একটু ভয়ও পাচ্ছিলেন। পায়েল নামের একজন বলেন, ‘টিকা দেওয়ার আগে অনেকে ভয় দেখিয়েছে। টিকা দিলে এই হবে, সেই হবে। কিন্তু এখন টিকা দিয়ে ভালো লাগছে। নিজেকে একটা আসন্ন বিপদ থেকে মুক্ত মনে হচ্ছে।’

হিজড়াদের হয়ে প্রথম টিকা গ্রহণ করেন নবজাগরণ হিজড়া শ্রমজীবী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি ফাল্গুনী হিজড়া। তিনি বলেন, ‘আমাদের অনেকের জন্মনিবন্ধন ও এনআইডি নেই। তাই নিবন্ধন করতে পারিনি। আবার অনেকে নিবন্ধন করেও টিকা দিতে পারেনি। কেউ কেউ বিচ্ছিন্নভাবে নিজ উদ্যোগে টিকা নিয়েছেন, তবে তা নগণ্য। এখন সরকার সবার জন্য যেভাবে আয়োজন করেছে, তাতে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। টিকার আওতায় এসে নিজেদের নিশ্চিন্ত মনে হচ্ছে।’

টিকা দেওয়ার আগে সবার নাম তালিকাভুক্ত করা হয়। নগরের পাহাড়তলী, আকবরশাহ, মুরাদপুরের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা হিজড়াদের নাম তালিকাভুক্তির কাজও করছিলেন রুবি হিজড়াসহ কয়েকজন। রুবি বলেন, ‘আজ এখানে সাড়ে তিন শ জনের মতো হিজড়া উপস্থিত হয়েছেন, আরও আসবেন। পর্যায়ক্রমে সবাইকে টিকা দেওয়া হবে। আমরা সবাইকে খবর পৌঁছে দিচ্ছি। প্রথম ডোজের পর দ্বিতীয় ডোজের বিষয়েও তাঁদের জানিয়ে দেওয়া হবে।’

তবে টিকা পেলেও টিকা সনদ নিয়ে একটা জটিলতা থেকেই যাচ্ছে। এ বিষয়ে হাসান শাহরিয়ার কবির বলেন, ‘যারা টিকা পাচ্ছেন তাঁদের নাম লেখা আছে। তাঁদের মধ্যে যাঁদের এনআইডি থাকবে তাঁদের সনদ পেতে সমস্যা হবে না। যাঁদের নেই তাঁদের সনদ পাওয়া একটু সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। সবচেয়ে বড় কথা আগে নিজেকে সুরক্ষিত করা।’

প্রথম ডোজ নিয়ে হিজড়ারাও নিজেদের অনেকটা সুরক্ষিত মনে করছেন। এ যেমন টিকা দিয়ে হাসতে হাসতে দ্রুতবেগে এক বন্ধুসহ মিলনায়তন ত্যাগ করছিলেন জোনাকি হিজড়া নামের একজন। তিনি বলেন, ‘কেউ আমাদের খোঁজ নেয় না। টিকার জন্য অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু এবার দিতে পারলাম। এখন নিজেকে সুরক্ষিত মনে হচ্ছে।’

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন