বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে উপসর্গ নিয়ে ১৫ জনই বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীর অবস্থায় মারা যান। এ নিয়ে এই হাসপাতালে উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার সংখ্যা দাঁড়াল ৮৮৪।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ১ হাজার ৫৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ। বিভাগে নতুন শনাক্ত হওয়া ৩৮৮ জনের মধ্যে বরিশাল জেলায় ৮৩ জন, পটুয়াখালীতে ৮৯ জন, ভোলায় ১৩৭ জন, পিরোজপুরে ৩১ জন, বরগুনায় ৩২ জন ও ঝালকাঠিতে ২৬ জন আছেন।

বিভাগে এখন পর্যন্ত ৩৮ হাজার ৬৮৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে বরিশাল জেলায় সর্বোচ্চ শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৮৬৬ জন। এ ছাড়া পটুয়াখালীতে ৫ হাজার ৩০০ জন, ভোলায় ৫ হাজার ৮৪ জন, পিরোজপুরে ৪ হাজার ৭৭৫ জন, বরগুনায় ৩ হাজার ৩৪২ জন ও ঝালকাঠিতে ৪ হাজার ৩১৭ জন শনাক্ত হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, তিন দিন ধরে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা করোনা টিকাদান নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। তাই নমুনা পরীক্ষা কম হয়েছে। এ জন্য শনাক্তের সংখ্যাও কমেছে বলে মনে হয়। তবে মৃত্যুর হার আগের মতোই ঊর্ধ্বমুখী।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন