বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে গতকাল সোমবার সকাল ৮টা থেকে আজ সকাল ৮টা পর্যন্ত বিভাগে আরটি-পিসিআর, র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন ও জিন এক্সপার্ট মেশিনে ৫ হাজার ১৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা পরীক্ষার অনুপাতে শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৫৯ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হওয়া ১ হাজার ৮ জনের মধ্যে রাজশাহী জেলায় সর্বোচ্চ ২৯৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৮, নওগাঁয় ১১৫, নাটোরে ৯৪, জয়পুরহাটে ৪৩, বগুড়ায় ১৪৪, সিরাজগঞ্জে ১০৯ ও পাবনায় ১৮৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে মোট করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬৯ হাজার ৬১।

এর আগের দিন বিভাগে ৫ হাজার ৪৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১ হাজার ৩৩৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল। শনাক্তের হার ছিল ২৪ দশমিক ৪৫ শতাংশ। অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে নমুনা পরীক্ষা কমেছে। সঙ্গে শনাক্ত ও সংক্রমণের হারও কমেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, গত বছরের ১২ এপ্রিল বিভাগের রাজশাহী জেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হন। ওই বছরের ২০ জুলাই শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ায়। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর ২০ হাজার, চলতি বছরের ১৯ এপ্রিল ৩০ হাজার, ৯ জুন ৪০ হাজার, ২৪ জুন ৫০ হাজার, ৫ জুলাই ৬০ হাজার ও সবশেষ আজ শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৬৯ হাজার ছাড়াল। এর মধ্যে চলতি মাসের প্রথম ১৩ দিনে ১৩ হাজার ৩০৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিভাগের ৮ জেলার মধ্যে বগুড়ায় সর্বোচ্চ ৪৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজশাহী জেলায়। এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১২২, নওগাঁয় ১০৭, নাটোরে ৮৮, জয়পুরহাটে ৪৬, সিরাজগঞ্জে ৩৫ ও পাবনায় ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে রাজশাহী বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৮১২ জন সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে বিভাগের ৮ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ৮ হাজার ৮৩৩ জন করোনা শনাক্ত রোগী চিকিৎসাধীন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ ছাড়া হাসপাতালের বাইরে বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১২ হাজার ৯৮৮ জন।

করোনাভাইরাস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন