নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় অপহরণের তিন দিন পর সাদমান আপন নামে পাঁচ বছর বয়সী এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার বিরাব এলাকায় মাটিতে পুঁতে রাখা লাশটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন আবুল বাশার (৩৭), তাঁর স্ত্রী মাহমুদা আক্তার (৩০) ও মাসুদ (২৮)।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলামের ভাষ্য, বিরাব এলাকার জাহিদুল ইসলামের সঙ্গে আবু নাসের, মাসুদ ও আবু বাশারের জমিজমা বিক্রিসংক্রান্ত আর্থিক লেনদেন নিয়ে বিরোধ চলছিল। বিরোধের জেরে গত শনিবার দুপুরে কয়েকজনের সহায়তায় ওই ব্যক্তিরা জাহিদুলের ছেলে সাদমানকে অপহরণ করে। এরপর মোবাইল ফোনে সাদমানের পরিবারের কাছে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা।

ওসি মাহমুদুল জানান, এ ঘটনার পর গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বাবা জাহিদুল বাদী হয়ে মামলা করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে গতকাল রাতে এক নারীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিরাব এলাকা থেকে সাদমানের পুঁতে রাখা লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওসির দাবি, অপহরণের দিন রাতেই সাদমানকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ পুঁতে রাখা হয় বলে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা স্বীকার করেছেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন