বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ সোমবার দুদক অভিযোগপত্রের অনুমোদন দেয়। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. সালাহউদ্দিন শিগগিরই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করবেন বলে জানা গেছে।

তদন্তসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আসামি এনামুল হক ওরফে আরমান বিভিন্ন অবৈধ পন্থায় জ্ঞাত আয়ের পাশাপাশি অসংগতিপূর্ণ ১২ কোটি ৪২ লাখ ৫৪ হাজার ৪২৮ টাকার অস্থাবর সম্পদ অর্জন করেছেন। অর্জিত অর্থের মধ্যে ৬ কোটি ৫৬ লাখ ২৫ হাজার ৩৭৯ টাকা সিঙ্গাপুরে পাচার করেছেন, যা দুদকের প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৭(১) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪ (২), ৪(৩) ধারায় অভিযোগপত্র দাখিলের সুপারিশ করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। দুদক আজ অভিযোগপত্র আদালতে দাখিলের অনুমোদন দেয়।

এনামুল হক ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সহসভাপতি ছিলেন। তিনি ক্যাসিনো সম্রাট খ্যাত ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটের সহযোগী ও ক্যাশিয়ার হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেপ্তার হওয়ার পর যুবলীগ দু’জনকেই বহিষ্কার করে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন