চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নের নতুন চরখাগরিয়া ১ নম্বর ওয়ার্ডে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনায় ছাবের আহমদ (২৬) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ৪০ জন। এ সময় পাঁচটি বসতঘরে আগুন ও সাতটি দোকান ভাঙচুর করা হয়।
এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত বৃহস্পতিবার থেকে গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টা পর্যন্ত এসব ঘটনা ঘটে।
নিহত ছাবের আহমদের বাড়ি নতুন চরখাগরিয়া দোকানপাড়া এলাকায়। গতকাল ভোরে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। সকালে ছাবেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুপুর ১২টার দিকে তিনি সেখানে মারা যান।
সাতকানিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) এ কে এম এমরান ভূঞা এবং সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খালেদ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. তারেক (১৫), কোরবান আলী (৫৫), দিল মোহাম্মদ (৪৫), মো. খোকন (২৭), মামুনুর রশিদ (২৪) ও জামাল পারভেজ (২১) নামের ছয় ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।
স্থানীয়, প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মো. ইউনুচ ও মো. মুছা নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে আরেক পক্ষের বিরোধ চলে আসছে। গত বৃহস্পতিবার এক ব্যক্তির কাছে পাওনা টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে ইউনুচসহ তাঁর লোকজন সেদিন দুপুরে ও রাতে প্রতিপক্ষের দোকান-বসতঘরে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন। এর জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন গতকাল ভোরে ও সকালে পাল্টা হামলা চালায়। পাল্টাপাল্টি হামলায় গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের ৪০ জন আহত হন। আহত ব্যক্তিদের দোহাজারী হাসপাতাল ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
মো. ইউনুচ বলেন, ‘শুক্রবার সকালের দিকে প্রতিপক্ষের লোকজন অতর্কিতে আমার প্রতিবেশীদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ৩০-৩২ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে ছাবের আহমদ মারা গেছেন। আহত অন্যরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’
প্রতিপক্ষের আবদুর রহিম বলেন, ‘পাওনা টাকা চাওয়ায় ইউনুচ মেম্বার ও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী দোকান-বসতঘর ভাঙচুর করে ও আগুন দেয়। এ ছাড়া তারা লুটপাটও চালিয়েছে। তাদের এলোপাতাড়ি গুলিতে ২০ জন আহত হয়েছে।’
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) পংকজ বড়ুয়া প্রথম আলোকে জানান, খাগরিয়া ইউনিয়নের ওই ঘটনায় আহত ১৩ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সাতকানিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইয়াসির আরাফাত বলেন, এলাকার আধিপত্য নিয়ে হামলা-ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পাল্টপাল্টি হামলায় একজন নিহত ও কমপক্ষে ৪০ জন আহত হয়েছেন।
সাতকানিয়া থানার ওসি মো. খালেদ হোসেন বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ১৫-২০টি ফাঁকা গুলি ছুড়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন