সুনামগঞ্জের ধরমপাশা উপজেলার মধ্যনগর বাজার, ধরমপাশা বাজার ও আশপাশের এলাকায় গতকাল সোমবার সকাল ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। একই দিনে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও বিএনপির একাংশের পৃথক কর্মসূচি থাকায় সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। গত রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মাইকিং করে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

ধরমপাশা থানা ও মধ্যনগর থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকারের দাবিতে গতকাল সকাল ১০টার দিকে উপজেলা বিএনপির একাংশের উদ্যোগে স্থানীয় দলীয় কার্যালয় ও মধ্যনগর থানাধীন বংশীকুণ্ডা উত্তর ইউনিয়ন বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে ওই দিন সকাল ১০টার দিকে গণপদযাত্রার আয়োজন করা হয়। পদযাত্রা শেষে মধ্যনগর বাজারে গণজমায়েত হওয়ার কথা ছিল। অন্যদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ হরতাল-অবরোধ ও সহিংসতা বন্ধের প্রতিবাদে গতকাল দিনব্যাপী ধরমপাশা বাজারে শান্তি পতাকা মিছিল, মানববন্ধন ও আলোচনা সভার আয়োজন করে। পাশাপাশি একই দিন সকাল ১০টায় মধ্যনগর থানা যুবলীগের উদ্যোগে মধ্যনগর বাজারে কর্মিসভা আহ্বান করা হয়। এ অবস্থায় ধরমপাশা বাজার, মধ্যনগর বাজার ও আশপাশের এলাকায় উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করে।

মধ্যনগর থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘আমরা নাশকতা বন্ধের দাবিতে মধ্যনগর বাজারে কর্মিসভা আহ্বান করেছিলাম। কিন্তু ১৪৪ ধারা জারি করায় আমরা কর্মসূচি স্থগিত করেছি।’

ধরমপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এ বিলকিস বলেন, ‘পেট্রলবোমায় মানুষ পুড়িয়ে মারাসহ সব ধরনের সহিংসতা বন্ধের দাবিতে সোমবার দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছিলাম। এখানে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকা সত্ত্বেও উপজেলা প্রশাসন অতি উৎসাহী হয়ে ১৪৪ ধারা জারি করে। দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে আলোচনা করে এ ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

উপজেলা বিএনপির একাংশের সাবেক সভাপতি ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য রফিক চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের শান্তিপূর্ণ গণপদযাত্রা কর্মসূচিকে বাধাগ্রস্ত করতে আওয়ামী লীগ ভীত হয়ে পাল্টা কর্মসূচি দিয়ে উপজেলা প্রশাসনকে ১৪৪ ধারা জারি করতে বাধ্য করেছে। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না বলেই আমাদের এ ধরনের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করতে দেওয়া হয়নি।’

ধরমপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশেক সুজা মামুন ও মধ্যনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাসানুজ্জামান জানান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করায় ধরমপাশা বাজার, মধ্যনগর বাজার ও আশপাশের এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম বলেন, একই দিনে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও বিএনপির পক্ষ থেকে পৃথক কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়ায় সংঘর্ষ এড়াতে ধরমপাশা বাজার, মধ্যনগর বাজার ও আশপাশের এলাকায় সভা, সমাবেশ ও যেকোনো ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচি নিষিদ্ধ করে সেখানে সোমবার সকাল ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন