default-image

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলায় প্রতিপক্ষের গুলিতে একটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গতকাল বুধবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বহরম পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পরে রাত দুইটার দিকে চেয়ারম্যানের কর্মী-সমর্থক ও বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী সন্দেহভাজন প্রতিপক্ষের ঘরবাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেন। এতে আটটি ঘর ও দুটি দোকান পুড়ে যায়।

গুলিবিদ্ধ ওই চেয়ারম্যানের নাম সোহরাব হোসেন (৩৫)। তিনি ওই উপজেলার খিরাম ইউপির চেয়ারম্যান।

পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাতে বহরম পাড়ার বাড়ির পাশে মসজিদের সামনে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. নাঈম উদ্দিনের সঙ্গে কথা বলছিলেন চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন। এ সময় হঠাৎ ১০ থেকে ১২ জনের একটি দল তাদের ওপর হামলা চালান ও গুলি করেন। এতে চেয়ারম্যান গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেলে কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ইউপি সদস্য মো. নাঈম উদ্দিন বলেন, চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলার সময় অতর্কিতে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। সন্ত্রাসীদের গুলি চেয়ারম্যানের পায়ে লাগে। বর্তমানে তিনি চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক রাকেশ ত্রিপুরা প্রথম আলোকে বলেন, চেয়ারম্যানের পায়ে দুটি ক্ষতচিহ্ন আছে। এক্স-রে প্রতিবেদন পেলে গুলি কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বাবুল আকতার আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রথম আলোকে বলেন, চেয়ারম্যানের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অপরাধীদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে। তবে এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি। বর্তমানে পরিস্থিত শান্ত রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0