ইয়াবার হোম ডেলিভারি

বিজ্ঞাপন
default-image

ইয়াবার হোম ডেলিভারি ধরা পড়েছে সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলায়। গতকাল বুধবার রাতে খালেদ আহমদ (২৭) নামের এক ব্যক্তি ইয়াবার একটি প্যাকেট হোম ডেলিভারি দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এ সময় গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল তাঁকে গ্রেপ্তার করে। প্যাকেটে ২ হাজার ৮০০টি ইয়াবা বড়ি ছিল। জেলা পুলিশ আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে।

করোনাকালে সিলেটের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা কেনাবেচার কৌশল বদল হয়। এ কৌশলের একটি ছিল ‘হোম ডেলিভারি’। গত ২৩ জুলাই সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার শিমুলতলা গ্রামে একটি বাড়ি থেকে জেলা পুলিশের একটি দল ৯০ লাখ টাকার ইয়াবাসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে। দুই সপ্তাহের মাথায় এবার বিয়ানীবাজারে গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ধরা পড়ল হোম ডেলিভারির মাধ্যমে ইয়াবা বিক্রির দ্বিতীয় ঘটনা।

জেলা পুলিশ সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায়, গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জেলা গোয়েন্দা শাখার (উত্তর) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইফুল আলমের নেতৃত্বে বিয়ানীবাজারের দুবাগ ইউনিয়নের দক্ষিণ দুবাগ গ্রামে অভিযান চালানো হয়। খালেদ আহমদ (২৭) নামের সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে আটক করে তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া যায় ২ হাজার ৮০০টি ইয়াবা, যার দাম প্রায় ৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

খালেদের বাড়ি বিয়ানীবাজারের চাতলপাড় গ্রামে। দক্ষিণ দুবাগ এলাকায় অবস্থান করে ইয়াবা হোম ডেলিভারি দেওয়ার প্রস্তুতির সময় ধরা পড়েন তিনি। ইয়াবাগুলো ১৪টি বিশেষ এয়ারটাইট পলিব্যাগে ছিল।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও মিডিয়া) মো. লুৎফর রহমান প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, এ ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) প্রলয় রায় বাদী হয়ে বিয়ানীবাজার থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছেন। মামলায় আটক খালেদকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন