default-image

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের ডাকা হরতাল-অবরোধের সমর্থনে পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজার এলাকায় আজ রোববার বিক্ষোভ মিছিল করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। মিছিলটি সেন্ট গ্রেগরি উচ্চবিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছালে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়।

ককটেল বিস্ফোরণে কবি নজরুল সরকারি কলেজের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী শারমিন সুলতানা (১৯) গুরুতর আহত হন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ওই কলেজটির আজ থেকে প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু হয়। তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আল আশরাফ মামুনকে আটক করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজের সামনে থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের ব্যানারে একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি বাহাদুরশাহ পার্ক এলাকায় আসার সময় পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। সেন্ট গ্রেগরি উচ্চবিদ্যালয়ের সামনে মিছিলকারীরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় শারমিন আহত হন।

শারমিনের মা লিমা আক্তারের ভাষ্য, দুপুরে সূত্রাপুরের ফরাসগঞ্জের বাগানবাড়ির বাসা থেকে কলেজে যাওয়ার উদ্দেশে মেয়েকে নিয়ে তিনি বের হন। একটি রিকশায় করে তাঁরা যাচ্ছিলেন। রিকশাটি সেন্ট গ্রেগরি উচ্চবিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছাতেই কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এতে শারমিন গুরুতর আহত হন। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি শারমিনকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের জরুরি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, শারমিনের পিঠে ককটেলের বেশ কয়েকটি স্প্লিন্টার বিদ্ধ হয়েছে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁর শরীরে অস্ত্রোপচার করতে হবে।

সূত্রাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খলিলুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের বলেন, ককটেল বিস্ফোরণের এক ঘণ্টা পর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আল আশরাফ মামুনকে আটক করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন