default-image

নবগঙ্গা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের প্রতিবাদ করায় এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় বাধা দিতে গেলে ৯ জন গুলিবিদ্ধসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। আজ বুধবার সকালে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার দেয়াডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম মাসুদ রানা (৩৫)। তিনি দেয়াডাঙ্গা গ্রামের আলী আকবর শেখের ছেলে। মাসুদ ইসলামী ব্যাংকের ফরিদপুর শাখার নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

আহত লোকজনকে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সদর হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ পুরুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কাজল মোল্লাসহ ছয়জনকে আটক করেছে। এ সময় পাঁচটি বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দেয়াডাঙ্গা গ্রামের মকবুল মোল্লার ছেলে মো. কাজল মোল্লা নবগঙ্গা নদী থেকে কয়েকটি খননযন্ত্র দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছিলেন। এতে নদীতীরবর্তী বাসিন্দারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় গ্রামের আমিনুর শেখ ও তাঁর লোকজন গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বাধা দেন। এর জের ধরে আজ সকাল ৮টার দিকে কাজল মোল্লার নেতৃত্বে ৫০/৬০ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসী আমিনুর শেখের বাড়িতে হামলা চালান। সন্ত্রাসীদের বাধা দিতে গেলে কাজল মোল্লার লোকজন শর্টগানের গুলিবর্ষণ করে। এ সময় মাসুদ রানা, ইভা খানম (৪), তাঁর মা সাথী বেগম (২২), আবদুর রহমান শেখ (৩৫), অনিক শেখ (২৭), আমিনুর রহমান (৪৫), ইমরান সরদার (৩০), রাজীব শেখ (২৫), হেকমত শেখ (৩৫) গুলিবিদ্ধ হন। এ ছাড়া মুকুল শেখ (৩৫), মনোয়ারা বেগম (৩৫), তিশা খানম (১৮), শফি সিকদার (৬৫) আহত হন। গুরুতর অবস্থায় মাসুদকে নড়াইল সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্যদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ওই গ্রামের ইসমাইল শেখ, রোস্তম শেখ, ইছাহাক শেখ বলেন, দুর্বৃত্তরা পুরুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি তবিবর রহমান, আমিনুর রহমান, শিমুল মোল্লার বাড়ি ভাঙচুরসহ লুটপাট করে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে কাজল মোল্লা, তাঁর ভাই টুনি মোল্লা, সোহান মোল্লাসহ ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নড়াইলের সহকারী পুলিশ সুপার শেখ মো. ইমরান হোসেন জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ তিনটি ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। খুনিদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0